বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৫০ অপরাহ্ন

ব্যাল্যবিয়ে প্রতিরোধী অ্যাপস ব্যবহার চালু

Reporter Name / ১৬৭ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৫০ অপরাহ্ন

জাগো দেশ,প্রতিবেদনঃ বাল্য বিয়ে রোধে দেশের মধ্যে এই প্রথম পাবনার চাটমোহরে ‘বাল্যবিয়ে প্রতিরোধী অ্যাপস’ উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার মুলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক কবির মাহমুদ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে অ্যাপস উদ্বোধন করেন। স্থানীয় সরকার বিভাগের এলজিএসপি-৩’র আর্থিক সহায়তায় এই ‘বাল্যবিয়ে প্রতিরোধী অ্যাপস’র পরিকল্পনা ও ব্যবস্থাপনায় রয়েছেন চাটমোহর
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরকার অসীম কুমার। অ্যাপস ব্যবহারের জন্য ওই ইউনিয়নের মাধ্যমিক পর্যায়ের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের কাছে ট্যাব
হস্তান্তর করা হয়। গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করা যাবে এই অ্যাপস।

এ সময় জেলা প্রশাসক তার বক্তব্যে বলেন, আমরা অভিভাবকরা সন্তানদের
ভালো রেজাল্ট অর্থাৎ জিপিএ-৫ এর পেছনে দৌড়াই। পরীক্ষা যেন ছেলে-মেয়েরা দেয় না, তাদের অভিভাবকরা দেন। আর ছেলে- মেয়েদের কোচিং সেন্টারে পাঠিয়ে
দিয়ে টিভির সামনে মায়েরা জি বাংলা-স্টার জলসা দেখতে বসেন আর বাবারা চা-
স্টলে বসে আড্ডা দেন। তিনি বলেন, সন্তানদের মানুষের মতো মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হলে এগুলো বন্ধ করতে হবে। সন্তান কোথায় যায়, কার সঙ্গে মেশে এগুলো খেয়াল রাখতে হবে। সন্তানের হাতে মোবাইল তুলে না দিয়ে, বই ও খেলাধুলার সামগ্রী তুলে দিয়ে তাদের চারিত্রিক গঠনে ভূমিকা রাখতে হবে পরিবারকেই।
মূলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রাশেদুল ইসলাম বকুলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শাফিউল ইসলাম, উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল হামিদ মাস্টার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরকার
অসীম কুমার। এছাড়া ‘বাল্যবিয়ে প্রতিরোধী অ্যাপস’ ব্যবহারের জন্য ১০টি ট্যাব, ২৬টি ডিজিটাল হাজিরা মেশিন এবং ৭০৮ জন শিক্ষার্থীর মাঝে শিক্ষা উপকরণ হিসেবে স্কুলব্যাগ বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে জনপ্রতিনিধি, অভিভাবক, শিক্ষক- শিক্ষার্থী, সাংবাদিক, সুধীজন উপস্থিত ছিলেন। বাল্য বিয়ে প্রতিরোধী অ্যাপসের ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরকার অসীম কুমার বলেন, উপজেলার মাধ্যমিক পর্যায়ের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্রীদের কমনরুমে রাখা থাকবে ট্যাব। তারা অ্যাপসে ঢুকে নিজের নাম-ঠিকানা, শ্রেণি-রোল নম্বর দিয়ে সমস্যার কথা লিখলে মেসেজ চলে আসবে
উপজেলা প্রশাসনের কাছে। উপজেলা প্রশাসন তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।
শুধু বাল্যবিয়েই নয়, যে কোনো যৌন হয়রানি, নির্যাতন বিষয়েও অ্যাপসের
মাধ্যমে জানালে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে জানান এই কর্মকর্তা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর