বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ১১:২৫ পূর্বাহ্ন

জীবননগরে কৃষকের ৭ কাটা পেয়ারা বাগান কেটে সাবাড়

Reporter Name / ১৫৪ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ১১:২৫ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার বাড়ান্দী গ্রামের এক প্রান্তিক কৃষকের বাণিজ্যিক ভিত্তিতে গড়ে তোলা পেঁয়ারা বাগানের ফলন্ত গাছ কেটে সাবাড় করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী কৃষকের দাবী শত্র“তা সাধন করতে পেঁয়ারা গাছ কেটে ক্ষতি করা হয়েছে। ঘটনাটি বুধবার রাতের আধারে সংঘটিত করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

এলাকবাসী সুত্র জানান, জীবননগর উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের বাড়ান্দী গ্রামের মৃত আব্দুল ওহাবের ছেলে প্রান্তিক কৃষক হযরত আলী তার বাড়ীর অদুরে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে ১৫ কাঠা জমিতে পেঁয়ারা বাগান গড়ে তোলেন। তার
বাগান এখন ফলে-ফুলে ভরপুর এবং কয়েকদিন পার হলে পেঁয়ারা বাজারজাত করা যাবে। এ অবস্থায় বুধবার সন্ধ্যা রাতে ওই বাগানের ৭ কাঠা জমির পেঁয়ারা গাছ দুর্বৃত্ত কেটে সাবাড় করে। ধারণা করা হচ্ছে এ কারণে বাগান মালিক হযরত আলীর প্রায় এক লাখ টাকা ক্ষতি হবে। এ ঘটনায় এলাকায় গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে গ্রামে হযরত আলীর প্রতিপক্ষরাই এমন ঘটনা ঘটিয়েছে। ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় ব্যাপক আলোচনা- সমালোচনার সৃষ্টি হয়।

এ ব্যাপারে কৃষক হযরত আলীর ছেলে শাহজালাল বলেন,আমাদের গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে সোহেল,জুয়েল ও মুনসুর আলী এবং সুলতান কবিরাজের ছেলে মুনসুর আলীদের সাথে আমাদের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। তাদের সাথে আমাদের আদালতে মামলা-মোকদ্দমাও চলছে। তারা আমাদেরকে মামলায় ফাঁসাতে না পেরে নানা ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ করতে হুমকি
ধামকী দিয়ে আসছিল। এ অবস্থায় উক্ত প্রতিপক্ষদের বাড়ী সংলগ্ন আমাদের ১৫ কাঠা জমিতে থাকা পেয়ারা বাগানে বুধবার রাত সাড়ে সাতটার দিকে প্রবেশ করে শত্র“তা সাধন করতে তারা প্রায় ৭ কাঠা জমির ফলন্ত পেঁয়ারা গাছ কেটে
সাবাড় করে দেয়। বাণিজ্যিক ভিত্তিতে গড়ে তোলা ওই বাগানের ৭০ টি পেঁয়ারা গাছ কেটে প্রায় এক লাখ টাকার ক্ষতি করেছে। প্রতিটি গাছের পেঁয়ারা রক্ষার জন্য পলিপ্যাক করা হয়েছে। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে পেঁয়ারা বাজারজাত
করা যাবে। এ অবস্থায় গাছ কেটে দিয়ে তারা আমাদেরকে সর্বশান্ত করেছে। এলাকায় বিচার না পেয়ে ঘটনার আমরা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।

এ ব্যাপারে রায়পুর ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত সংশি¬ষ্ট ওয়ার্ড মেম্বার কোহিনুর বেগম বলেন,ঘটনার ব্যাপারটি আমি শুনেছি। আমি ঘটনাস্থলে যেতে পারিনি। তবে ঘটনার সাথে যারাই জড়িত থাকুক না কেন তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিৎ
বলে মনে করি। একটি বাণিজ্যিক ভিত্তিতে গড়ে ওঠা বাগান এ ভাবে তছরূপকারীরা মানুষ হতে পারে না।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর