রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৬:৩৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
দেশে করোনাভাইরাসে আরও ৮ জনের মৃত্যু শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে রুপান্তরিত হয়েছে ….নওগাঁয় তথ্যমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষুদ্র নৃ-তাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর কথা চিন্তা করে আলাদা একটি সেল চালু করেছে নওগাঁয় খাদ্যমন্ত্রী দামুড়হুদার কুড়ুলগাছি সীমান্তে আলমসাধু চাপায় মনিরুল ইসলাম নামের একজন নিহত আরামডাঙ্গায় নাইট ক্রিকেটে কুনিয়া চাঁদপুর একাদশ জয়ী কার্পাসডাঙ্গায় শাফা ক্যামিক্যাল কোং প্রতিষ্ঠানে ভ্রাম্যমান অভিযান : ৫ হাজার টাকা জরিমানা দর্শনা থানার ওসি মাহবুবুর রহমান কাজল এর সফলতার ১ বছর পূর্তি কুষ্টিয়ায় জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস পালিত জীবননগর থানা পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে ১ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ২ মাদক, সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ চক্র নির্মূলে চলছে সাঁড়াশি অভিযান

স্ত্রীকে অচেতন করে মুখে ও শরীরে গরম পানি ঢেলে পালাল স্বামী

Reporter Name / ৭৩ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৬:৩৩ অপরাহ্ন

স্টাফ রিপোর্টারঃ পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীকে ঘুমের বড়ি খাইয়ে অচেতন করে মুখে ও শরীরে গরম পানি ঢেলে দিয়েছে তার স্বামী। সোমবার ভোরে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় এ ঘটনা ঘটে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্ত্রী পাপড়ি আক্তারকে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে নেয়া হয়। সেখান থেকে চিকিৎসা নিয়ে রাতে বাসায় আসেন পাপড়ি আক্তার। ফতুল্লার রসুলপুর এলাকায় আমির হোসেনের ভাড়াটিয়া বাসায় এ ঘটনা ঘটে। ঘুমের মধ্যেই চিৎকার দিলে পরিবারের সদস্যরা উঠে পড়লে পাষণ্ড স্বামী পায়েল মিয়া দৌড়ে পালিয়ে যায়। আহত পাপড়ি আক্তার পিরোজপুর জেলার উদয়কাঠি এলাকার নাজিম উদ্দিন হাওলাদারের মেয়ে। আর তার স্বামী পায়েল মিয়া রংপুর জেলার গঙ্গাচরা থানার বুড়িরহাট মিরাজপাড়া গ্রামের সুলতান মিয়ার ছেলে। পাপড়ি আক্তার জানান, পায়েল মিয়ার সঙ্গে ১০ বছর আগে তার বিয়ে হয়। তাদের একটি সাত বছরের ছেলে আছে। ছেলের জন্মের পর থেকেই স্বামী স্ত্রীর মধ্যে কোনো সম্পর্ক নেই। তাই স্বামীর বাড়ি ছেড়ে বাবার বাড়ি ফতুল্লার রসুলপুর এলাকায় চলে আসেন তিনি। সন্তানকে বাবা মায়ের কাছে রেখে পাপড়ি গার্মেন্টসে কাজ করেন। ৭ বছরের মধ্যে তার স্বামী তাদের কোনো খোঁজখবর নেয়নি। তিনি আরো জানান, শুক্রবার হঠাৎ ফতুল্লার রসুলপুর এলাকায় তাদের ভাড়া বাসায় আসেন পায়েল মিয়া। এরপর পায়েল তাদের বাড়ি নিয়ে যাবে বলে পাপড়িকে সন্তান নিয়ে প্রস্তুত হতে বলেন। এতে পাপড়ি অস্বীকৃতি জানান। আর এতদিন কেন স্ত্রী সন্তানের খোঁজখবর নেয়নি জানতে চান পাপড়ি আক্তার। এ নিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে তর্ক হয়। এরপর কৌশলে দুদিন স্ত্রীর সঙ্গে থাকেন পায়েল মিয়া। এক পর্যায়ে স্ত্রীকে রাতে খাবারে সঙ্গে ঘুমের বড়ি খাইয়ে অচেতন করে ভোরে ঘুমন্ত অবস্থায় গরম পানি মুখে ও শরীরে ঢেলে দিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায় পায়েল। এ সময় পরিবারের সদস্যরা চিৎকার শুনে ঘুম থেকে উঠে পাপড়িকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। ফতুল্লা মডেল থানার এসআই জাকির হোসেন বলেন, সকালে থানায় লিখিত অভিযোগ করার বিষয়টি শুনেছি রাতে। কিন্তু দিনে কেউ বিষয়টি না জানানোয় ঘটনাস্থলে তাৎক্ষণিক যেতে পারিনি। সকালে ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নিবো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর