সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ০১:৫৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
চুয়াডাঙ্গার মা নার্সিংহোমে সিজারিয়ানে পর সদর হাসপাতালে নবজাতকের মৃত্যু মুজিবনগরে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বীর মুক্তিযোদ্ধা রমজান আলীর দাফন মুজিবনগরে রাস্তার রাজা মাটিবাহী ট্রাক্টর,সড়ক যেন মরনফাঁদ গাংনীতে মুক্তিযোদ্ধাদের হয়রানী বন্ধসহ ১০ দফা দাবীতে মানববন্ধন গাংনীর চেংগাড়া গ্রামে ঐতিহ্যবাহী গ্রামীন খেলাধুলা অনুষ্ঠিত মেহেরপুরে মিনি নাইট ক্রিকেট টুর্নামেন্ট’র উদ্বোধন স্বাধীনতার মাস শুরু সিরাজদিখান নতুন ভাষানচর ফুটবল প্রিমিয়ার লিগ অনুষ্ঠিত  সুন্দরবন ম্যানগ্রোভ পক্ষ থেকে ৫ গুনি ব্যক্তিকে স্বঃস্বঃ কর্মক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য সম্মাননা প্রদান আলমডাঙ্গায় সরকারি গাছ কাটার অভিযোগ

রাজপথে কেঁদে কেঁদে ছেলে হত্যার বিচার চাইলেন মা

Reporter Name / ৯৮ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ০১:৫৫ অপরাহ্ন

সিলেট প্রতিনিধিঃ সিলেটের রাজপথে কাঁদতে কাঁদতে বিচার চাইলেন পুলিশি নির্যাতনে মারা যাওয়া রায়হানের মা। সোমবার বিকেলে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের আখালিয়া এলাকায় মানববন্ধনে ছেলে হত্যার সঙ্গে জড়িতদের শাস্তির দাবি করেন তিনি। এ সময় তার পরিবারের অন্য সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন। মানববন্ধনে রায়হানের মা কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমার ছেলে ছিনতাইকারী বা অপরাধী নয়। বিনা দোষে তাকে বন্দরবাজার ফাঁড়িতে ধরে নিয়ে পুলিশ রাতভর নির্যাতন করে হত্যা করেছে। পুলিশ মানুষের রক্ষক, কিন্তু সেই পুলিশই আমার ছেলেকে হত্যা করলো। তিনি বলেন, ঘুষের টাকার জন্য পুলিশ আমার ছেলেকে হত্যা করেছে। রায়হানের দুই মাস ২১ দিনের একটিমাত্র মেয়ে রয়েছে। সে বড় হলে আমি কী জবাব দেবো, আর আমি কীভাবে এটি সহ্য করবো।

পুলিশের নির্যাতনে রায়হান হত্যার প্রতিবাদে ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে স্থানীয়রা। এ সময় বিক্ষোভকারীরা আল্টিমেটাম দিয়ে বলেন, ৭২ ঘণ্টার ভেতরে রায়হান হত্যাকারীদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে। তা না হলে কঠোর আন্দোলন করা হবে। মানববন্ধনে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে, রোববার ভোরে পুলিশের নির্যাতনে রায়হান উদ্দিন নামে এক যুবক নিহত হওয়ার অভিযোগ তুলেছেন তার স্বজনরা। নিহত রায়হান সিলেট নগরীর আখালিয়ার নেহারিপাড়ার রফিকুল ইসলামের ছেলে। পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, ছিনতাইয়ের সময় গণপিটুনিতে মারা গেছেন রায়হান। তবে নিহতের পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, পুলিশ ধরে নিয়ে নির্যাতন করে রায়হানকে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় রোববার রাতে অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করেন রায়হানের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার। এদিকে, রায়হানের মৃত্যুর ঘটনায় বন্দরবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ আকবর হোসেন ভূঁইয়াসহ চার পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ। একইসঙ্গে তিন পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এসএমপির এডিসি (মিডিয়া) জ্যোতির্ময় সরকার। আকবর হোসেন ভূঁইয়া ছাড়া বরখাস্ত হওয়া অন্য তিনজন হলেন- এএসআই তৌহিদ মিয়া, কনস্টেবল টিটু চন্দ্র দাশ ও হারুনুর রশীদ। আর প্রত্যাহার করা তিনজন হলেন- এএসআই আশীক এলাহী, এএসআই কুতুব আলী ও কনস্টেবল সজীব হোসেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর