শনিবার, ১৫ অগাস্ট ২০২০, ১০:৪৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
ইবিতে জাতীয় শোক দিবস পালিত পাইকগাছায় আওয়ামী লীগের বঙ্গবন্ধুর ৪৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করেছে দামুড়হুদার বিষ্ণুপুরে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে উদয়ন সংঘের বিভন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে জাতীয় শোক দিবস পালন জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কুড়িগ্রামে পুনাক এর উদ্যোগে দুঃস্থ ও অসহায় মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ শৈলকুপায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত শহীদ টগরের ৪৯তম শাহাদৎ বার্ষিকী পালন উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত  ১৫ ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে মেহেরপুরে আওয়ামী নবীন লীগের পক্ষ থেকে দোয়া মাহফিলের আয়োজন পরিবেশ বান্ধব কলম আবিষ্কার করলেন, যশোরে নাসিমা আক্তার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৫ তম শাহাদত বার্ষিকীতে দোয়া ও সভা অনুষ্ঠিত আন্দুলবাড়ীয়ায় যথাযথ মর্যাদায় ১৫ ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালিত

যে কারণে টাইটানিকের শেষে জ্যাককে ‘মেরে ফেলা’ হয়

Reporter Name / ৬৮ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শনিবার, ১৫ অগাস্ট ২০২০, ১০:৪৫ অপরাহ্ন

বিনোদন ডেস্কঃ টাইটানিক ছবিটি সারাবিশ্বের জনপ্রিয় ছবিগুলোর মধ্যে একটি। সিনেমার শেষে নায়ক জ্যাক (লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও) তার প্রেমিকা রোজকে বাচিয়ে রেখে সাগরের অতলে ডুবে যান। বিশ বছর পর নায়ক জ্যাক সিনেমার শেষে কেনো মারা যান এবার সেই প্রশ্নটিরই উত্তর দিলেন নির্মাতা জেমস ক্যামেরন। ক্যামেরন বললেন, ছবিতে জ্যাককে মেরা ফেলার কারণটা আসলে খুব সাধারণ। মূলত টাইটানিক হল একটি মৃত্যু আর বিচ্ছেদের গল্প। মৃত্যুই দু’জন মানুষকে চূড়ান্তভাবে আলাদা করে ফেলে। তাই জ্যাককে বেঁচে রেখে রোজের সঙ্গে তার মিলন দেখালে ছবিটি পুরোপুরি অর্থহীন হয়ে যেত। আমরা চেয়েছিলাম টাইটানিককে একটি ট্রাজিডি হিসেবেই দেখাতে। তিনি আরো জানান, স্ক্রিপ্টের ১৪৭ নম্বর পেজে লেখাই ছিল ছবিতে নায়ক জ্যাক মারা যাবে আর নায়িকা তার স্মৃতি রোমন্থন করেই কাটিয়ে দেবেন বাকিটা জীবন। তাই জ্যাককে না মেরে উপায় ছিল না। আর এজন্যই ছবির একেবারে শেষ মুহূর্তে গহীন আটলান্টিকে রোজ তার কাঠের দরজাটি জ্যাকের সঙ্গে ভাগাভাগি করেননি। চাইলে সেই টুকরোটি ধরে রেখে তারা দুজনই বাঁচতে পারতেন। বিশ্ব চলচ্চিত্র ইতিহাসের অন্যতম সফল ছবি হল টাইটানিক। ১৯৯৭ সালের ডিসেম্বরে মুক্তি পায় জেমস ক্যামেরনের এ ছবিটি। আর সে সময় ছবিটি দেখেননি এমন মানুষ হয়তো খুব কমই পাওয়া যাবে। ছবিটির মধ্য দিয়ে পরিচালক চেয়েছিলেন জীবন্ত ইতিহাসকে তুলে ধরতে। ধনীর ঘরের মিষ্টি মেয়ে রোজের সঙ্গে নিম্নবিত্ত ঘরের জ্যাকের প্রেমকে কেন্দ্র করেই নির্মাণ হয়েছে ঐতিহাসিক এ ছবিটি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর