বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০২:৫৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
বিবিসির সেরা ১০০ নারীর তালিকায় ২ বাংলাদেশি কপাল ফ্যারে রাই কিশোরী শীত এসেছে শহরে নগর আলমডাঙ্গা উপজেলা কৃষকলীগের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী ও খাদ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে আনন্দ মিছিল ও সমাবেশ আলমডাঙ্গা দর্জি শ্রমিক ইউনিয়নের সদস্য মরহুম সিরাজুল ইসলামের রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া মহফিল বাগেরহাটে মোরেলগঞ্জে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ উদ্বোধন মোড়েলগঞ্জ- শরণখোলায় আমন ফসলে কারেন্ট পোকার আক্রমন কৃষক দিশেহারা ফকিরহাটে পৃথক অভিযানে ১১জনকে ৩৩ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত: অভিযান অব্যাহত বাগেরহাটে নানা আয়োজনে “ভ্রমণকন্যার” ৪র্থ বর্ষপূর্তি উদযাপিত

সিরাজগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ

Reporter Name / ৬০ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০২:৫৭ অপরাহ্ন

বিশেষ প্রতিবেদকঃ সিরাজগঞ্জের হাটিকুমরুল গোলচত্ত্বরে মা জেনারেল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। গত ৬ জুলাই সন্ধ্যায় প্রসবজনিত ব্যথায় রায়গঞ্জ উপজেলার ঘুড়কা জগনাথপুর গ্রামের প্রবাসী আরিফুল ইসলাম বাবুর স্ত্রী নিলুফা ইয়াসমিন সিরজাগঞ্জ রোড চত্বরে মা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন। ভর্তি হওয়ার পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে সিজারিয়ান করতে হবে বলে জানান। এরপর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ প্রসূতির সিজার করাতে কোনো ব্যবস্থাই নেননি। রাত ১২টার দিকে প্রসব ব্যথা হলে জরায়ু মুখের সাইড কেটে নিলুফার সন্তান প্রসব করা হয়। জরায়ু’র সাইড কেটে ফেলায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়। রক্ত বন্ধ না হওয়ায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ প্রসূতি নিলুফাকে ভোরে বগুড়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। বগুড়া যাওয়ার পথে মঙ্গলবার সকালে নিলুফার মৃত্যু হয়। নিলুফার শাশুড়ি মমতা বেগম অভিযোগ করেন বলেন, জরায়ুর মুখে সাইড কাটার পর ফুটফুটে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। সাইড কাটতে গিয়ে যেকোনো রগ কেটে ফেলেছে হয়তো। তাই জরায়ুর মুখ দিয়ে রক্তক্ষরণ শুরু হয়। ভোর ৩টার দিকে নিলুফাকে রেফার্ড করেন। রেফার্ডের কাগজপত্র হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দেয়নি। প্রসবের নামে নিলুফাকে হত্যা করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এর বিচার চাই। মা জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক নুরুল ইসলাম, অভিযোগ সত্যতা স্বীকার করে বলেন, রক্ত না থাকায় নিলুফা মারা গেছেন। তাকে বগুড়ায় রেফার্ড করে দিয়েছি। উল্লাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, বিষয়টি অবগত হয়েছি। ইউএনওকে নিয়ে হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সিরাজগঞ্জ সিভিল সার্জন মো. জাহিদুল ইসলাম বলেন, প্রসবের সময় প্রসূতিকে হত্যা এই ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনা মেনে নেয়া যায় না। মা জেনারেল হাসপাতালের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর