বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ০৫:৩৩ পূর্বাহ্ন

পরকীয়ার জেরে স্বামীকে হত্যা, মরদেহ রেখেই কাজে গেলেন স্ত্রী

Reporter Name / ১৩৯ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ০৫:৩৩ পূর্বাহ্ন

গাজীপুর প্রতিবেদকঃ গাজীপুরের টঙ্গীতে পরকীয়ার জের ধরে স্বামীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্ত্রীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত স্ত্রী বিউটি আক্তারকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার সকালে টঙ্গীর হিমারদিঘি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত সাইফুল ইসলাম রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার চাঁনবাগ গ্রামের শামসুল ইসলামের ছেলে। তিনি ভ্রাম্যমাণ চা বিক্রেতা ছিলেন। পরিবার নিয়ে তিনি হিমারদিঘি এলাকার আব্দুল কুদ্দুসের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। টঙ্গী পূর্ব থানার এসআই বাবুল হোসেন জানান, দীর্ঘদিন ধরে স্ত্রীর পরকীয়া নিয়ে দাম্পত্য কলহ চলছিল। এরই জেরে বুধবার সকালে সাইফুল ও বিউটির কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে স্বামীর গলায় ছুরিকাঘাত করেন স্ত্রী। পরে স্বামী সাইফুলের মরদেহ ঘরে রেখেই কারখানায় কাজে যোগ দেন বিউটি। সকাল সাড়ে ৯টায় কারখানা থেকে ছুটি নিয়ে বাসায় ফিরে আসেন তিনি। বিষয়টি পাশের ভাড়াটিয়ারা জানতে পেরে পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার ও বিউটিকে আটক করে।

এসআই বাবুল আরো জানান, মরদেহ গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের ছেলে আরিফুল ইসলাম জানান, তারা তিন বোন ও এক ভাই। তিনি টঙ্গীতে একটি কারখানায় চাকরি করেন। তার দুই বোনের বিয়ে হয়েছে আরেক বোন ছোট। তারা আব্দুল কুদ্দুসের বাড়িতে ভাড়া থাকেন। ছয়-সাতদিন আগে পারিবারিক বিষয়ে তার বাবা-মায়ের ঝগড়া হয়েছিল। বুধবার সকালে তিনি ও ছোট বোন বড় বোনের ঘরে টিভি দেখছিলেন। সকালে মা কোকাকোলা কারখানায় কাজে যান। কিছুক্ষণ পর মা বাসায় চলে আসেন। পরে মাকে ডাক দিলে ঘরের ভেতর থেকে দরজা বন্ধ পাওয়া যায়। অনেক ডাকাডাকির পর মা দরজা খুললে ভেতরে বাবার মরদেহ পাওয়া যায়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর