মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৪৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
৬ বার জেলে গেলেও জাল টাকা ছাড়তে পারেনি হুমায়ূন আলমডাঙ্গায় মাদক,সন্ত্রাস,জঙ্গীবাদ,বাল্যবিবাহ ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধ বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত পাইকগাছায় রাত পোহালেই ভোট যুদ্ধ!কে হতে যাচ্ছেন উপজেলার অভিভাবক.? স্পিকারের সঙ্গে বাংলাদেশে নবনিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ সংক্রমণ রোধে সবাইকে মাস্ক পরার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর এসআই আকবরকে ধরিয়ে দিতে ১০ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা প্রবাসীর কুষ্টিয়ায় বিস্কুটের প্রলোভনে শিশুকে ধর্ষণ, তিন সন্তানের বাবা গ্রেফতার মাত্র ৩০ সেকেন্ডে ১২ লাখ টাকা গায়েব কার্পাসডাঙ্গা বাজারে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা : ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানসহ মোটরসাইকেল আরোহীর জরিমানা খুলনায় শ্রমিকদের দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, সংঘর্ষে আহত ১৫

চুয়াডাঙ্গায় জুমার খুৎবায় সুদ নিয়ে আলোচনা করায় বাদ দেয়া হলো ইমামকে

Reporter Name / ১৯০৭ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৪৯ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে সুদ খাওয়া হারাম বলে মসজিদে আলোচনা করায় ইমামকে বাদ দিলেন মসজিদ কমিটির সদস্যরা। গত শুক্রবার জীবননগর পৌর শহরের ইসলামপুর আল-আকছা মসজিদে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনাটি জীবননগর শহরে টক অব দ্যা টাউনে পরিণত হয়েছে। স্থানীয়রা জানায়, জুমার নামাজের বক্তব্যে সুদ বিষয়ে আলোচনা করেন ইমাম সাহেব। কোরআন ও হাদিসের আলোকে সুদ বিষয়ে ইসলামের অবস্থান তুলে ধরেন। একই সাথে সুদের
কারণে সমাজে সৃষ্ট সমস্যাগুলো ব্যাখ্যা করেন। ইমাম সাহেব কোরআন ও হাদিসের উদ্ধৃতি দিয়ে।বলেন, সুদ দেয়া ও নেয়া দুটোই সমান অপরাধ এবং সুদ খাওয়া সম্পূর্ণ হারাম। এ থেকে সবাইকে সাবধানে থাকতে হবে। ঈমান যদি ঠিক
রাখতে হয়, যারা সুদের সাথে জরিত তাদের তওবা করতে হবে। এমন আলোচনা করায় ইমাম সাহেবের উপর ইসলামপুর গ্রামের কয়েকজন মুসল্লি ক্ষিপ্ত হয়ে
ওঠে এবং মসজিদ কমিটির সভাপতি ও সম্পাদককে বলে ইমাম সাহেবকে ওই মসজিদ থেকে বাদ দিয়ে দেন। এ বিষয়ে ইসলামপুর আল- আকছা মসজিদের ওই ইমামের সাথে কথা বলার জন্য চেষ্টা করা হলে তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া গেছে। এদিকে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ খোকন বলেন, ইমাম সাহেব অনেক দিন এই মসজিদে আছে। যার ফলে স্থানীয় ব্যক্তিরা বলছেন, মসজিদে একজন নতুন ইমাম আনতে হবে। ইমাম সাহেবকে বিষয়টি বললে তিনি নিজেই এই মসজিদে আর নামাজ না পড়ানোর কথা বলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর