মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ০৮:০৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
আলমডাঙ্গা উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ৭ মার্চ রেসকোর্স ময়দানের ভাষনের ৫০ বছর পালন উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্প মাল্য অর্পন তালা’র ৬৭জন নৌকা প্রতিক প্রত্যাশীর ১১জনই খেশরা ইউনিয়নের খাউলিয়ায় আলহাজ্ব মাস্টার সাইদুর রহমান কে নৌকার মাঝি হিসাবে চায় দলীয় নেতাকর্মীরা নারী দিবসের প্রাক্কালে আলমডাঙ্গা গোবিন্দপুরে এক বোনের জমি ,আরেক বোন জবর দখলের চেষ্টা ‘স্বাধীনতার ইতিহাস বিকৃতি ও আমরা’লেখক আলমডাঙ্গায় ২ বেকারিতে ২৯ হাজার টাকা জরিমানা জীবননগরে পাট চাষিদের এক দিনের প্রশিক্ষণ জমি নিয়ে দুই ছেলের মারামারি দেখে বাবার মৃত্যু ফলোআপ: ছোট্ট শিশু কোলে নিয়ে ভাইরাল ইউএনও দিলারা ছদ্মনামে মোবাইলে প্রেম, ডেকে নিয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ

সময় টিভির সাংবাদিক টুটুলের উপর হেফাজত কর্মীদের হামলার ৭ বছর আজ

Reporter Name / ১১০ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ০৮:০৫ পূর্বাহ্ন

শেখ সাইফুল ইসলাম কবির, সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট:পেশাগত দায়িত্ব পালন শেষে ফেরার পথে বাগেরহাটের প্রেসক্লাবের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক আলী আকবর টুটুলের উপর হেফাজত কর্মীদের হামলার ৭বছর হলেও বিচার হয়নি আজও। কে হামলা করেছে, কারা করেছে তাও জানা নেই পুলিশের। যদিও বর্বরোচিত এ হামলার কিছুদিন পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আছাদুজ্জামান খান কামাল ফকিরহাটে থানা ভবন উদ্বোধনের সময় জনসম্মুখে তৎকালীন পুলিশ সুপারকে মামলা করতে নির্দেশ দিয়েছিলেন। তারপরও এতদিনে কোন বিচার হয়নি! সে কারণ অজানা সাংবাদিকদের কাছে। যার ফলে বাগেরহাটের সাংবাদিকদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

আজ ৬মে ২০১৮। ২০১৩ সালের এই দিনে বাগেরহাটের প্রেসক্লাবের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক আলী আকবর টুটুলের উপর হামলা করেছিল হেফাজত কর্মীরা। খুলনা-বাগেরহাট মহাসড়কের ফকিরহাট উপজেলার কাঠালতলা এলাকায় হেফাজত কর্মীরা রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করছিল। এসময় সংবাদ সংগ্রহ করে ফেরার সময় ২০-২৫ জন হেফাজত কর্মী টুটুলের উপর চড়াও হয়ে বেধড়ক মারপিট করে। পরে সহকর্মীরা উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন টুটুলকে। হামলার বছর হলেও হয়নি কোন বিচার।

সাংবাদিক টুটুল বলেন, হেফাজত কর্মীদের হামলার শিকার হয়ে এখনও শারীরিকভাবে অসুস্থ্য বোধ করছি। দুইবার ভারতে গিয়ে চিকিৎসা নিয়েছি। তারপরও পুরোপুরি সুস্থ্য হয়ে উঠতে পারিনি। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী এখনও ঔষধ সেবন করে যাচ্ছি। আরও উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রচুর অর্থ প্রয়োজন। টুটুল আরও বলেন, হামলার বিষয়টি আজও মনে পরলে ভয়ে আৎকে উঠি। সকলের দোয়া ছিল তাই আজও সংবাদ মাধ্যমে কাজ করে যাচ্ছি। তবে কারা হামলা করছিল পুলিশ আজও তা জানাতে পারেনি! এটাই আমার দু:খ! আশা করি কোন সংবাদকর্মীকে যেন এরকম ভয়াবহ ঘটনার মুখোমুখি হতে না হয়।

ওই সময়ে সাথে থাকা সহকর্মী বাগেরহাট জেলা মফঃস্বল সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি খোন্দকার নিয়াজ ইকবাল বলেন, মানুষ কতটা উন্মাদ হলে এ ধরনের হামলা করতে পারে তা আমি দেখেছি। তারা সংবাদকর্মীদের টার্গেট করে এ হামলা চালায়। আমি এর সুষ্ঠু বিচার দাবী করছি।জাতীয় মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের চেয়ারম্যানও জয় বাংলাভিশনের প্রধান সম্পাদক – প্রকাশক শেখ সাইফুল ইসলাম কবির বলেন,আলী আকবর টুটুলের উপরহামলার সুষ্ঠু সুবিচার চাই।দোষীদেরসহ সব ঘটনার বিচার করতে হবে।দোষীদের বিচার না হলে অবক্ষয় বাড়বে।আজকে আমরা নতুন স্বপ্ন দেখছি। বিশ্বের দরবারে আমাদের মাথা উঁচু হয়ে গেছে।আজ বাংলাদেশ নতুন স্বপ্ন দেখতে পাচ্ছে।বাগেরহাট প্রেসক্লাবের সভাপতি আহাদ উদ্দিন হায়দার বলেন, প্রেসকাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক টুটুলের উপর হামলার সুবিচার চাই। পুলিশ দায়িত্ববান হয়ে দোষীদের বিচার করবেন এ কামনা করি।বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায় বলেন, হেফাজত কর্মীদের হামলায় সাংবাদিক, পুলিশ সদস্যসহ বেশ কয়েকজন সাধারণ মানুষ আহত হয়েছিল। উক্ত ঘটনায় ৬টি মামলা হয়েছিল। প্রত্যেকটি মামলা এখন আদালতে বিচারাধীন রয়েছে


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর