বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ০৮:৪৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
সিরাজগঞ্জ জেলা পুলিশের আয়োজনে হেপাটাইটিস “বি” ভ্যাক্সিন (বুস্টার ডোজ) ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত জীবননগরে শিকড় সমাজ কল্যাণ সংস্থার বাস্তাবায়নে ১শত পরিবারের মাঝে বিনামুল্যে টিউবওয়েল বিতরণ মিডিয়ায় গুজব, অপপ্রচার, নারীর প্রতি ডিজিটাল ভায়োলেন্স ও কিশোর গ্যাং বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ চুয়াডাঙ্গার দর্শনা চেকপোস্টের জিরো পয়েন্ট থেকে কারাভোগ শেষে ভারতীয় নাগরিককে হস্তান্তর দামুড়হুদায় জাতীয় ভোটার দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত দামুড়হুদায় যুবকদের জনসচেতনতামূলক প্রশিক্ষণ গাংনীতে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাও কর্মসূচিতে পুলিশের বাধা মেহেরপুরে পুলিশ মেমোরিয়াল ডে পালন শৈলকুপাতে রাস্তায় নারীকে পিটিয়ে আহত

চাঁদপুরে দুই প্রেমিক মিলে এক স্কুলছাত্রীকে হত্যা

Reporter Name / ১৩৩ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ০৮:৪৯ অপরাহ্ন

নিহত স্কুলছাত্রী শারমিন আক্তার কাকলি।

চাঁদপুর প্রতিনিধিঃ চাঁদপুরের মতলব উত্তরে স্কুলছাত্রী শারমিন আক্তার কাকলি
খুনের রহস্য উদঘাটিত হয়েছে । সাবেক ও বর্তমান প্রেমিকের হাতে কাকলি নৃশংসভাবে খুন হয় বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্তকারী মতলব উত্তর থানার ওসি মো: নাসিম উদ্দিন মৃধা। তিনি জানান, কাকলির সাবেক প্রেমিক ও সহপাঠী সাইফুদ্দিন প্রতারিত হয়ে এবং নতুন প্রেমিক প্রতারিত হবার আশংকা থেকেই এ নির্মম হত্যাকাণ্ড ঘটেছে । সাইফুদ্দিন এ হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী স্বীকার করে পুলিশি জেরায় লোমহর্ষক ঘটনা বর্ণনা করেছে। সাইফুল জানায়, গত ২৮ মার্চ ভোরে মোবাইল ফোনে শারমিন আক্তার কাকলিকে বাড়ি থেকে ডেকে নেয় সে। পূর্ব পরিকল্পনা মাফিক কাকলির নতুন প্রেমিক আগে থেকেই ঘটনাস্থল
অক্সফোর্ড কিন্ডারগার্টেনে অবস্থান করছিল। সাইফুদ্দিনের ডাকে সাড়া দিয়ে কাকলি ওই স্থানে গেলে তারা দুজনে কাকলিকে খুনের পর তার মাথা বিচ্ছিন্ন করে প্রায় ২০০ ফুট দূরে একটি পরিত্যাক্ত ডোবায় ফেলে দেয়। হত্যাকাণ্ডের পর সাইফুদ্দিন সুজাতপুর গ্রামে নিজের বাড়িতে অবস্থান করে। হত্যার ২৮ দিন পর বুধবার কাকলির মাথাবিহীন লাশ পুলিশ উদ্ধার করেছে জানতে পারলে পাশের গ্রামে নানার বাড়ি আশ্রয় নেয় সাইফুদ্দিন। ওসি নাসিম উদ্দিন মৃধা জানান, মূলত কাকলির মোবাইল ফোনের কললিস্টের সূত্র ধরেই সাইফুদ্দিনকে আটক করা হয় এবং তার।দেখিয়ে দেয়া তথ্যমতে কাকলির বিচ্ছিন্ন মাথা ও হত্যায় ব্যবহৃত
ছুরি উদ্ধার করা হয়। হত্যাকাণ্ডে জড়িত কাকলির নতুন প্রেমিককে খুঁজে বের করার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে পুলিশ। উল্লেখ্য, গত ২৮ মার্চ নিখোঁজ হয় কাকলী। ২৯ মার্চ তার মা রোকেয়া বেগম বাদী হয়ে থানায় জিডি করেন। পরে ২২ এপ্রিল সুজাতপুর বাজার সংলগ্ন অক্সফোর্ড কিন্ডারগার্টেনের একটি কক্ষ থেকে অর্ধগলিত মাথা ছাড়া মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। স্থানীয় সূত্র মতে, মতলব উত্তরের পূর্ব ইসলামাবাদ গ্রামের প্রবাসী বজলু বেপারির বড় মেয়ে শারমিন আক্তার কাকলির সঙ্গে প্রথমে প্রেম ছিল পাশের সুজাতপুর গ্রামের রাসেল
আহমেদের ছেলে সাইফুদ্দিনের। কয়েক মাস আগে কাকলির সঙ্গে নতুন করে সম্পর্ক হয় এলাকায় রাজমিস্ত্রীর কাজ করা আরেক কিশোরের। বিষয়টি আঁচ করতে পেরে সাইফুদ্দিন ওই কিশোরের সঙ্গে সখ্য গড়ে তোলে। এরপরই দুজন মিলে কাকলিকে খুন করে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর