শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০৫:২৮ অপরাহ্ন

অসামাজিক কাজ করাতে না পেরে নারীকে ন্যাড়া করে দিল স্বামী

Reporter Name / ১৩২ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০৫:২৮ অপরাহ্ন

স্টাফ রিপোর্টারঃ অসামাজিক কাজে বাধ্য করতে না পেরে ঠাকুরগাঁওয়ে এক
নারীকে নির্যাতনের পর ন্যাড়া করে দিয়েছে স্বামী আমিরুল ইসলাম। মাথা ন্যাড়ার ঘটনা এলাকায় ছড়িয়ে পরলে লজ্জায় ওই নারী এখন ঘর ছেড়ে আশ্রয় নিয়েছে অন্যের বাসায়। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও পুলিশ বলছে, সামাজিক অবস্থানে ফিরিয়ে আনতে ভুক্তভোগী নারীর পাশে থাকার পাশাপাশি অভিযুক্তের বিরুদ্ধে
আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বড়বাড়ি ইউনিয়নের মিস্ত্রিপাড়া গ্রামের রোজিনা বেগমকে অসামাজিক কাজে লিপ্ত
করার চেষ্টায় দীর্ঘদিন ধরে শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে আসছিল স্বামী আমিরুল ইসলাম। নির্যাতন করেও অন্যের সাথে রাত কাটাতে বাধ্য করতে না পারায়, গেল শনিবার (৭ মার্চ) বিকেলে স্ত্রী রোজিনা বেগমকে ঘরের খুঁটির সাথে বেঁধে মাথার
চুল কেটে ন্যাড়া করে দেয়। এ ঘটনা এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে লজ্জায় ভুক্তভোগী নারী সন্তানদের নিয়ে আশ্রয় নেয় পাশে ফুলতলা গ্রামের ওই নারীর ভাগিনা মিজানুরের বাসায়। এ ঘটনার পর পুলিশ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা ওই নারীর পাশে থেকে সহায়তা ও আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানালেও প্রতিবেশী ও
স্বজনরা আমিরুলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। এলাকাবাসী জানান, গৃহবধু রোজিনাকে তার স্বামী প্রতিনিয়িত নির্যাতন করতো। যেদিন তার মাথা ন্যাড়া করে সেদিন তার স্বামী বাইরের গেটে তালা দেয়ায় কেউ তার বাড়িতে ঢুকতে পারে নি। সমাজে এ ধরনের নোংরা কাজ করা ঠিক হয়নি। আমরা তার শাস্তির দাবি জানাই। ভুক্তভোগী নারী রোজিনা বেগম জানান, ‘দীর্ঘদিন ধরে আমার স্বামী কারণে-অকারণে আমাকে নির্যাতন করে। কিছুদিন আগে আমাকে অন্যের সাথে রাত কাটাতে বলে টাকার বিনিময়ে। আমি তার কথায় রাজি হইনি বলেই আমাকে উলঙ্গ করে মারপিটের পর হাত পা বেঁধে মাথার চুল কেটে ন্যাড়া করে দেয়। আমার তিন সন্তান তাদের সামনে এসব করায় আমি লজ্জায় নিজেকে শেষ করে দিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু বাচ্চাদের দিক তাকিয়ে তা করতে পারিনি। আমি আমার স্বামীর ভাত খাবো না। আমাকে সে রেহাই দিক। আমি তার শাস্তি চাই। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা চেয়ারম্যান আলী আসলাম জুয়েল জুয়েল জানান,‘সমাজে একজন নারীকে ন্যাড়া করার ঘটনা লজ্জাজনক বিষয়। ওই নারীর পাশে আমরা রয়েছি।’ এ বিষয়ে বালিয়াডাঙ্গী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাবিবুল হক প্রধান জানান, ‘ভুক্তভোগী ওই নারীকে নির্যাতন করা হতো। আমিরুলের নামে নিয়মিত মামলা রজু করা হয়েছে। অভিযুক্ত আমিরুলকে এ ঘটনার পর মঙ্গলবার বিকেলে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ডাঙ্গীবাজার এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর