রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৮:০৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
আলমডাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী মতিয়ার রহমান ফারুকঃ আমি নির্বাচিত হলেঅবহেলিত মহিলাদের পাশে দাড়িয়ে সেবা করে যাবো ইউটিউব ভিত্তিক চ্যানেল এসএফটিভির সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতির পদ থেকে শাহ আলম মন্টুর পদত্যাগ আলমডাঙ্গায় ৮ দলের ব‍্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতা উদ্বোধন করলেন পৌর মেয়র হাসান কাদির গনু জীবননগর ৫৫ পিস ইয়বাসহ মাদক ব্যবসায়ী নাজমুল আটক বিষ্ণুপুর দারুল উলুম কাওমী মাদরাসার উদ্যোগে ১০ ম বার্ষিক তাফসীরুল কুরআন মাহফিলে হাজার হাজার মুসল্লীর ঢল সরকারি অনুদানের দায়মুক্তি ছবি নিয়ে ব্যস্ত আছেন নায়িকা সুস্মি রহমান দর্শনা কেরুজ চিনিকল সমূহ ৫ দফা দাবি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মানববন্ধন নাটোরের লালপুরে ৩ হাজার ৬৪০ মিটার রাস্তা পাঁকাকরণ কাজের উদ্বোধন মহেশপুরে করোনায় স্কুল মাস্টারের স্ত্রী’র মৃত্যু ঝিনাইদহে নদীতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

জীবননগরে প্রেমের টানে দু সন্তানের জননী প্রেমিকের হাত ধরে উধাও

Reporter Name / ২৪৪ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৮:০৬ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ জীবননগর উপজেলার কাশিপুর মাঠপাড়ায় সহজ-সরল স্বামী আর দু’সন্তানকে রেখে পরকীয়ার টানে এক গৃহবধূ প্রতিবেশী যুবকের হাত ধরে অজানা ঠিকায় পালিয়েছে। এ ঘটনায় স্বামী বেচারা দু’সন্তানকে নিয়ে পড়েছেন মহাবিপাকে। পারিবারিক সুত্র জানায়,জীবননগর উপজেলার কেডিকে ইউনিয়নের কাশিপুর মাঠপাড়ার শরবত আলীর ছেলে কায়ুম আলীর (৩৫) সাথে উপজেলার হাসাদহ ইউনিয়নের বকুন্ডিয়া গ্রামের নুরুল ইসলামের মেয়ে আকলিমার (৩০) গত ১২-১৩ বছর আগে বিয়ে হয়। তাদের দীর্ঘ দাম্পত্য জীবনে কবিতা (৯) নামের একটি মেয়ে সন্তান ও আব্দুল্যাহ (৫) নামের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। সুখেই চলছিল তাদের দাম্পত্য জীবন।

এ অবস্থায় গৃহবধূ আকলিমা খাতুন প্রতিবেশী ইন্তাজ আলীর অবিবাহিত ছেলে শাহ আলমের(২০) সাথে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে। গোপনে চলতে থাকে তাদের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক। এক পর্যায়ে ব্যাপারটি পারিবারিক ভাবে জানাজানি হলে তা প্রতিবেশীদের মধ্যেও গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। তারা পরনিন্দাকে পাত্তা নাদিয়ে একে অপরের সাথে সুখের ঘর বাধতে পরিকল্পনা করে। গৃহবধূ আকলিমার সহজ-সরল স্বামী কায়ুম আলী বলেন,রোববার সকাল ১১ টার দিকে আমার স্ত্রী আকলিমা জীবননগর হাসপাতালে যায়। হাসপাতালে কিছুক্ষণ অবস্থান করতে না করতেই আমাকে বলে যে,টাকা আনতে ভুলে গেছি,এখন কি হবে? এ কথা বলে আমাকে টাকা আনার জন্য বাড়ীতে পাঠিয়ে দেয়। আমি সরল মনে তাকে হাসপাতালে রেখে বাড়ী থেকে টাকা নিয়ে হাসপাতালে গিয়ে দেখি স্ত্রী আকলিমা নেই। এ অবস্থায় আমি খোঁজাখুজি করতে থাকি। এক পর্যায়ে জানতে পারি আকলিমা প্রতিবেশী শাহ আলমের সাথে চলে গেছে। আবার সোমবার সকালে জীবননগর কাজি অফিস থেকে ফোন দিয়ে বলা হয় আমার স্ত্রী আকলিমা আমাকে গত এক সপ্তাহ আগে আমাকে ডির্ভোস দিয়ে দিয়েছে।
গ্রামের একাধিক মানুষের মন্তব্য শাহ আলম ঘটনার দিন বিকাল পর্যন্ত বাড়ীতে ছিল না। ধারণা করা হচ্ছে গৃহবধূ আকলিমাকে সে কোথায় রেখে এসে,নিজের অপরাধ গোপন করার চেষ্টা করছে। জীবননগর কাজি অফিস সহকারী সোহেল বলেন,আকলিমা খাতুন আমাদের কাজি অফিসে এসে তার আগের স্বামী কায়ুম গত এক সপ্তাহ আগে স্বেচ্ছায় ডির্ভোস দিয়েছে। আমরা তালাকের কপি সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদে পাঠিয়ে দিয়েছি। এ ব্যাপারে কেডিকে ইউনিয়ন পরিষদের সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বার নিজাম উদ্দিন বলেন,শাহ আলমের সাথে গৃহবধূ চলে গেছে এমন গুঞ্জন গ্রামে ছড়িয়ে পড়েছে। শাহ আলম বর্তমানে বাড়ীতেই আছে। আবার শুনছি গৃহবধূ আকলিমা নাকি তার আগের স্বামী কায়ুমকে তালাক দিয়েছে। আগে কখনও তাদের পরকীয়া নিয়ে কিছু শুনিনি। লোকজন বলছে শাহ আলম গৃহবধূ আকলিমাদের বাড়ীতে যাতায়াত করত। তারপরও খোঁজাখুজি চলছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর